Close

অফিস সহায়ক এর কাজ কি ? অফিস সহকারীর দায়িত্ব ও কর্তব্য

অফিস সহায়ক এর কাজ কি

আমাদের দেশের মানুষ চতুর্থ শ্রেণীর অন্তর্ভুক্ত পিয়ন পদটির সাথে অনেক পরিচিত। কোনো কোনো কার্যালয়ে অফিস পিয়নকে দফতরি, আর্দালি বা চাপরাশি নামে ডাকা হয়। আমরা জানি পিয়ন শব্দটি ইংরেজি। পিয়ন, দফতরি, চাপরাশি, আর্দালি এইসব পদবী কে এমএলএসএস নামেও অভিহিত করা হয়ে থাকে।

এমএলএসএস এর অর্থ হলো মেম্বার লোয়ার সাব-অর্ডিনেট সার্ভিস। সরকারের জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে জারিকৃত ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৪ খ্রিষ্টাব্দের পরিপত্র দ্বারা এমএলএসএস, পিয়ন, দফতরি, চাপরাশি, আর্দালি এই সব পদবী পরিবর্তন করে  “অফিস সহায়ক”  নামের একটি একক পদবী করা হয়।

বর্তমান সরকারি অফিসে পিয়ন কিংবা এমএলএসএস নামে এই ব্রিটিশ আমলের পদটি খুজে পাওয়া যায় না। এই পদের নতুন করে নামকরন করা হয় “অফিস সহায়ক” ২০১৪ খ্রিষ্টাব্দে  জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে পিয়নেই নতুন এই নামকরণসহ চতুর্থ শ্রেণীর প্রায় ৩৪টি পদের নাম পরিবর্তন করা হয়েছে।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের পরিপত্র অনুযায়ী পরিবর্তিত উল্লেখযোগ্য কিছু পদের মধ্যে এমএলএসএস/ দফতরি/পিয়ন/ডিম পরীক্ষক/শেয়ারিং এটেনডেন্ট/বুচার/টি বার অ্যাসিসটেন্ট/চাপরাশি পদগুলোর একক নামে নামকরণ করা হয়েছে  “অফিস সহায়ক”

অফিস সহায়কের কাজ বলতে বুঝায় তার উর্ধতন কর্মকর্তাদের কাজে প্রয়োজনীয় নিষ্ঠার সাথে সহযোগীতা করা। অফিস সহায়ক এর অর্থ- অফিসের যাবতীয় কাজে সহায়তা করা। এই পদবীর অর্থ থেকেই স্পষ্টভাবে ধারণা পাওয়া যায় যে, তাদের কর্মপরিধি বা কর্মের ব্যাপ্তি কতটুকু এবং অফিসের কাজের সাথে  সম্পর্কিত নয়  এমন কোনো কাজ করতে তারা বাধ্য কি না বা তাদের বাধ্য করা যাবে কি না।

সরকারি চাকুরী এবং সাধারণ প্রশাসন বিভাগ নিয়ন্ত্রণ শাখা, শাখা ১ নম্বর এস,জি, এ/আর আই/আই এস-135/69/252(350) তারিখ: ২৯ অক্টোবর ১৯৬৯ এর  মোতাবেক সরকারি পিয়নদের/অফিস সহায়কদের দায়িত্ব ও কর্তব্য নিম্নরূপ নির্ধারণ করা হয়েছে। নিম্নে তা তুলে ধরা হলো।

অফিস সহায়ক এর দায়িত্ব ও কর্তব্য 

  •  অফিসের যাবতীয় আসবাবপত্র এবং রেকর্ড সমূহের সুন্দরভাবে আসন বিন্যাস সাধন করা এবং পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করে রাখা।
  • অফিসের সমস্ত ফাইল এবং কাগজপত্র নির্দেশক্রমে এক জায়গা হইতে অন্য জায়গা  কিংবা অন্য অফিসে স্থানান্তর করা।
  • পরিমানে কম ওজনের আসবাবপত্র গুলো অফিসের মাঝে একস্থান হইতে অন্যস্থানে সরিয়ে আবার ঠিকমত বসানো।
  • গুরুত্বপূর্ণ ফাইল সমূহ স্টিলের বাক্স বা আলমারীতে  বন্দী করে রাখা এবং নির্দেশক্রমে এক অফিস হইতে অন্য অফিসে নেয়া।
  • অফিসের কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণকে পানীয় জল পান করাবেন।
  • তাহারা অফিসের সমস্ত মনিহারী ও অন্যান্য দ্রব্যাদি সংরক্ষণের জন্য দায়ী থাকিবেন।
  • তাহারা তাদের জন্য নির্ধারিত ইউনিফর্ম পরিধান করে অফিসে  আসবেন।
  • তাহারা স্ব স্ব শাখা এবং কর্মকর্তার নির্দেশিত কাজ সঠিক ভাবে করিবেন।
  • তাহার দর্শণপ্রার্থী এবং পাবলিকের সহিত ভদ্রতা বজায় রাখিয়া ব্যবহার করিবেন।
  • তাহারা কর্মকর্তার পক্ষে ব্যাংকে চেক জমা এবং টাকা তুলবেন।
  • তাহারা অফিস সময়ের ১৫ মিনিট পূর্বে অফিসে আসবেন এবং সহকারী সচিব/প্রধান সহকারীর নিকট আগমনের রিপোর্ট প্রদান করবেন।
  • তাহারা বিনা অনুমতিতে কোন সময় অফিস ত্যাগ করবেন না।   

সমাপনীঃ

পরিশেষে বলা যায় যে, অফিস কর্তৃপক্ষ বা বস পিওনদের/অফিস সহায়কদের দায়িত্ব নির্ধারণ করবেন। অফিসের প্রয়োজনে যে কোন কাজ করাতে পারবেন। তাই বলে ঝাড়ুদারের কাজ নয়, তাই বলে সুইপারের কাজ নয়। সাধারণত আমরা পিওন বা অফিস সহায়কের একই রকম কাজ করতে দেখি।

আশা করি অফিস সহায়ক এর কাজ কি বর্তমানে আপনারা এবিষয় অবগত হতে পেরেছেন। নিয়মিত এভাবে লেখা পেতে আমাদের ওয়েব সাইটে ভিজিট করুন।

আরও পড়ুনঃ

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *